প্রিয়তম, Sonjit Tirky Pronob

 



প্রিয়তম,

প্রথমে আমার হ্নদয়পূর্ণ ভালোবাসা নিও।আমি তোমাকে একটা কথা বলেছিলাম।তোমার মনে আছে কি না আমি জানি না।আমি বলে ছিলাম আমি প্রেম করতে ভালোবাসি।তাই আমি সর্বদা বলি love,love,love।হয়ত বা তুমি আমাকে পাগল বলতে পার তাতে আমার দুঃখ নেই।কিন্তু বিশ্বাস কর আসলেই আমি একটা পাগল হতে চাই।তুমি চিঠিটা পড়ে বলবে কেমন কথা বলছ তুমি।loveছাড়া একদন্ড থাকতে পারি না।তাই ত আমি ছুটে যাই বারংবার তোমাদের হ্নদয়স্পর্শে।তুমি বিশ্বাস কর বা না কর তাতে আমার কিছু মনে হবে না।তুমি আমাকে ভালোবাসা বা না বাসো তাতে আমি দুঃখ পাব না।কিন্তু আমাকে ভালোবাসতে বাঁধা দিবে না কথা দাও!তোমার সাথে দেখা করে কথা বলার মত পরিস্থিতি তৈরী করতে পারব না কিন্তু এ চিঠির মাধ‍্যমে আমি ত তোমাকে ভালোবাসতেই পারি।তুমি আমাকে ভালোবাস অথবা ঘৃণা কর দুটাই সমান।কেননা আমি জানি যদি আমাকে ভালোবাস থাকব তোমার হ্নদয়ে আর যদি ঘৃণা কর থাকব তোমার মনে।এই অধিকারটুকু কি আমি পেতে পারি?কলমের অগ্রে বল থাকেই বলে লেখাকে সুন্দর করে তুলে।তোমার কাছ থেকে এ অধিকারটুকু পেলে আমি ভালোবাসাকে আরো সুন্দর করে তুলব।তুমি জানো কি না আমি জানি না,কিন্তু এইটুকু বলতে পারি যে আমার হ্নদয়ে শুধুই তোমার বাস আছে।প্রতিক্ষণে আমি শুধু তোমার কথা ভাবতে চাই। কে যেন বাঁধা সৃষ্টি করে তোমাকে ছাড়া আমি বাঁচতে পারব না এটাই বাস্তবতা!আমার মনের মধ‍্যে একটা অরণ‍্য সৃষ্টি করেছি,যেখানে শুধু তোমার বিচরণ।হরিণ বনে বিচরণ করে বলেই তাকে সুন্দর লাগে।তুমি আমার মনে বিচরণ করলে সুন্দর্য‍্যে আমার হ্নদয় পুলকিত হয়।তুমি কেমন মায়াবী! মায়াবী হরিণের মত মায়া দেখিয়ে চলে যাও।ধরা দাও না কেন?আমি কি কোনো অপরাধ করেছি?যদি কোন কারনে বৃথা দিয়ে থাকি তাহলে আমি দন্ডভোগ করার জন‍্য প্রস্তুত।কিন্তু তুমি আমাকে ছেড়ে যাবে না কথা দাও!আমি তোমার জন‍্য সুন্দর ভুবন তৈরী করতে চাই।সেই ভুবনে আমি আর তুমি শুধু থাকব।আর সর্বদা বলব “আমি তুমি,তুমিই আমি।” আনন্দের ভালোবাসা কি সত‍্যিই দুঃখ দেয়?তাই তুমি বিরহ প্রেমের শিক্ষা দাও।যে প্রেম অনন্তকাল ধরে মানুষ মনে রাখে।ধন‍্য আমি তোমাকে ভালোবেসে।তুমি আমাকে কখনও হ্নদয় থেকে তাড়িয়ে দিও না!আমি তোমাকে ছাড়া বাঁচতে পারব না।
তোমার হ্নদয়স্পর্শী
হ্নদয়গ্রাহী ভালোবাসা

https://storyandarticle.in/sonjit-tirky-pronob-2/