Chhannachara




শিরোনাম – রবি স্মরণ!
কলমে —- ছন্নছাড়া


একশত ষাট বছর আগে পঁচিশে বৈশাখ এক পূণ্য দিন,
এসেছিলে তুমি বাংলার ঠাকুর পরিবারে সেদিন।
তখন কে আর জানত বলো জোড়াসাঁকোর সেই ছেলে?
বিশ্বজোড়া পরিচিতি পাবে একদিন আপনার কলমের বলে!
শিশুবেলা থেকে তোমার প্রতিভা ফেলেছিল যে ছাপ,
আস্তে আস্তে সে প্রতিভা পার করেছিল সৃষ্টির সকল ধাপ।
তোমার চিন্তাধারা, প্রকৃতি প্রেম ঝরে পরত কলমের মুখে,
তোমার সৃষ্টিরা সব অমর হয়ে রয়ে গেছে বাঙালির বুকে।
তোমার কবিতা, গান, নাটক, প্রবন্ধ সবেতেই আমরা প্রকৃতিকে জেনেছি,
গ্রীষ্ম, বর্ষা, শরৎ, হেমন্ত, শীত আর বসন্তকে সবাই চিনেছি।
প্রেম, বিরহ, বিচ্ছেদ, মৃত্যু সবকিছুকে চিনিয়েছ তুমি,
তোমার ভাবনায় তাই নিজেকে সঁপেছি আমি।
বাবা, মা, ভাই, স্ত্রী, সন্তান হারিয়েছে তোমার একে একে,
মৃত্যুকে পাওনি ভয়, মৃত্যুঞ্জয় হয়ে রেখেছ তাকেও বুকে।
তবুও আশি বছর আগে, এক বাইশে শ্রাবণে মৃত্যুকে আপন করে নিলে,
আপামর বাঙালি সেদিন হারালো আপনার শ্রেষ্ঠ বিশ্ববিজয়ী ছেলে।
প্রতিবার আজকের দিনে বুকে বাজে তোমাকে হারানোর বেদনার সুর,
তোমার কবিতা, গানে তোমাকেই স্মরণ করে সেই বেদনাকে করি দুর।
তবুও এই অবক্ষয়ের দিনে তোমার অভাব অনুভূত হয়,
হয়ত আজও তুমি থাকলে হত না মানবতার অপমান, হত তার জয়!