বিষাক্ত আন্টিমনীর মতো কেউ বিছানার ভেতর থাকা মানুষটির অবয়ব কল্পণা করতে পারেনি মন্মথ পুরুষটির পিঠে

Story and Article


নিমাই জানার  কবিতা

অনাথ বন্ধু ও হৈমন্তিক জলাশয়

অনাথ বন্ধু আজও নির্ভার ভেলিয়াম বিষাক্ত নাগচম্পা ফুলের পুংস্তবক মাথায় নিয়ে , প্রতিটি বিয়োগ চিহ্নের মাথায় রেডিয়াম সাপটি খুব চকচকে দেখায় সাতজন ঋষি মানুষের কমন্ডুল জল নিয়ে

রজঃচক্রে গজিয়ে ওঠা শিকড়হীন হিন্দোল মন্ডল আমার পোশাকের বিশল্যকরণী লালাভ তৃতীয় বাহুকে খুঁজছে অচ্যুত শব্দের সমার্থক শব্দ দিয়ে

পুরুষ ফুল জড়ো করি আমার প্রাচীন হৈমন্তিক জলাশয়ের নিচে , কে আসছে ওই টলটলে রাতের অঙ্গজ শরীর ফুঁড়ে

বিষাক্ত আন্টিমনীর মতো কেউ বিছানার ভেতর থাকা মানুষটির অবয়ব কল্পণা করতে পারেনি মন্মথ পুরুষটির পিঠে

চেয়ে দেখো জিরাফের দীর্ঘ গলা থেকে টেনে এনে জড়ো করে আমার সব মৃত দরজার জীবাশ্ম সকল

এখন জটিল অ্যাড্রিনালিন বিষয়ক একটি কবিতা পাঠ হওয়া উচিত আমি বোবা রাহুল নারীকে খুলে দেখাবো শিফন পরবর্তী দশমিক এসকরবিক এসিডের টুকরোগুলো কোন নীল রঙের ওষুধের গায়ে ঘামের ছিদ্র নেই ,

অনুস্বর জ্বরের প্রত্যয় চিহ্নের পর সকলেই অপাদান তৃতীয় লিঙ্গকে লুকিয়ে রাখবে মহা নবমী তিথির জন্য

ম ব্যঞ্জনের পরে একটি প্রকাণ্ড মায়াঅরণ্য আছে সিগময়েড রংয়ের


দ্বিতীয় জেন্ডার অথবা মীরার বাঁশি


সব পোষাক বিচিত্রবীর্যের , স্থলভূমিতে জমাট বীর্যপাতের মানুষেরা নিজের শিরদাঁড়ার সূক্ষ্মকোণ মৌলিক উদ্যানে কঙ্কাল হয়ে ওঠে

আমি অক্ষয় বৃক্ষের শীতল পরিযায়ী পাখিদের উড়িয়ে দেবো স্থলপদ্ম নিশাচর নাভিমূলের দিকে ,

বাসুদেবম একম শব্দটির পরবর্তী জ্ঞানযোগ তীর্থক্ষেত্রে পরমাত্মা পুরুষটি আমাকে চৈতন্য মাঠে নিয়ে যাবে উলঙ্গ আকুন্দ ফুলের মতো

আমি বিলিয়ে দেব ধর্ম নামের ২৪ শব্দের নামহীন পোশাক সর্পিলাকার সিলেন্টেরন ক্ষত

ঈশ্বর নাভির নিচে অনেক সৃষ্টি এখনো আছে জরায়ুজ শরীরের মতো , বাবা শরীরে কোন যৌগিক গাণিতিক চিহ্ন নেই , কেবল শরীর একা শাঁখ বাজায় ক্ষর ছায়ায় দাঁড়িয়ে

শূন্য ঘরে থাকা পরিযায়ী দ্বিতীয় জেন্ডারের দাঁতালো মাংসাশী প্রাণী রবছিদ্র ফেলে তৈরি করে ফেলবে স্নায়বিক পুতুল

সমর্পণ শরীর যোগহীন নারীদের মতো সুরঞ্জন , ঈশ্বরের মতো জলে দাঁড়িয়ে থাকে কালিদহের উর্ধাংগ, চাঁদের মতো প্রলাপ আলগা করবেন ধ্যানযোগের প্রভু

পর্ণমোচী হবেন গিরিধারী , বিষাদ স্বরবর্ণের মতো একাকী মীরা বাঁশি বাজাবেন তপস্যা ফুলের সংলাপ দিয়ে

ইছামতি নারীটি আকুন্দ ফুলের গোড়ায় জল দিয়ে পুরুষটির কল্পনা করবেন