ধরা দিতে চাওনা বুঝি, অভিমান করে আছো ?

ভাস্কর মাঝি


 শিরোনাম - তুমিহীনা 

কলমে - ভাস্কর মাঝি 


দিনের আলোয় স্বপ্নেরা আঁকড়ে ধরে,

ভোরের কুয়াশা, পাখির কলতান, উদিত সূর্যের লাল আভা, প্রাতঃভ্রমণের ব্যস্ততা, কর্মবীর মানুষের দাপাদাপি, কোমল বাতাস, ফুলের সুবাস - সব ছিল ,এসব কিছুর সঙ্গে মিশে আছো তুমি । 

তবু তোমাকে ছুঁতে পারি না 

ধরা দিতে চাওনা বুঝি, অভিমান করে আছো ?


জানো তো তোমার সঙ্গে অনেক - অনেক কথা বলার ছি-ল-- 

না থাক, তোমার যে অভিপ্রায়ের বড় অভাব শোনার সময়ই বা কোথায়। 

ব্যথা, যন্ত্রণা, চাওয়া, পাওয়া, ইচ্ছে, ভালোলাগা, ভালোবাসা, স্বপ্ন গুলো তোমার কাছে বড্ড বিরক্তিকর । 

কখনো সর্বহারা মানুষের গল্পের শ্রোতা হয়ে দেখো !

ভাঙ্গা মনের সাহারা হয়ে হাতে হাত রেখো, দেখবে রঙিন পৃথিবীর উজ্জ্বল আলোয় ওরা কেমন বর্ণহীন । 


জ্বালা ধরানো দ্বিপ্রহর থেকে ইলশেগুঁড়ির কোঁড়ক হাতে সঙ্গী হয়েও একাকিত্বের অনুভবে পেরিয়েছি পথ । 

বেখেয়ালি ছুঁয়ে যাওয়া যে অসন্তোষে ভরা । 

চোখের ভাষা অবজ্ঞার ঘরকে আলোকিত করে আছে । 

শরীরী সংলাপ যে যোগ্যতার দরকষাকষিতে নিলাম হয়েছে । 


শীতের আগুন, গঙ্গার ঘাট, নির্জন পার্কের ফাঁকা বেঞ্চ, ল্যাম্পপোস্টের ক্ষীণ আলো, গলির ছায়াপথ, স্যাঁতস্যাঁতে দেওয়াল, আগোছালো বিছানা, টিক টিক ঘড়ির কাঁটা আর ঘুরে চলা পাখার প্লেটে কীটপতঙ্গের দাপাদাপি, সবকিছুতেই কেমন যেন তোমার প্রতিচ্ছবি, তোমার স্পর্শ, তোমার শরীরের গন্ধ মাখানো,

তবু ও কেমন যেন সব..........