সকল শব্দ হয় কল্পলতা ;কোথাও অমৃত, কোথাও গরল, এরই আর এক নাম পরবাস

 

অমিতাভ মুখোপাধ্যায়

পাঁচটি কবিতা 


অসময় 

অমিতাভ মুখোপাধ্যায়


একসময় জীবনের ছেঁড়া তার গুলো জুড়তে চেয়েছিলাম -

জোড়া হলো না, 

জানি, ছেঁড়া তার কখনো জোড়া লাগে না ;

ভেঙে যাওয়া পরিবারের মতো, 

সময়ের শর্ত মেনে একান্ত আপনও একসময়  দূরে সরে যায়, পাল তোলা নৌকার মতো, 

রক্ত ঋণ কেউ কেউ মনে রাখে না -

অসময়ের এই পৃথিবীতে ;

সাধের জীবনকে তখন ধূসর মরুভূমি  মনে হয় -

কৈশোরের নানা রঙের দিনগুলো মনে পড়ে, 

সেদিনতো আমরা সকলেই একান্নবর্তী ছিলাম-

সযত্নে গাঁথা মালার মতো !


আজ ছিন্ন -ভিন্ন আমরা সকলেই ;

এটার কী খুব প্রয়োজন ছিল? 


এক জীবনে অনেক জীবন -

শুধুই সময় -অসময়ের খেলা !


তারপর অথৈ সাগরে ভেসে যাওয়া 

দিক হারানো নাবিকের মতো !




আমার কথা

অমিতাভ মুখোপাধ্যায় 


অমলকান্তি রোদ্দুর হতে চেয়েছিলো 

আমি অমলকান্তি নই 

তাই রোদ্দুর হতে চাই নি 

নিতান্তই এক ছায়াছন্ন দুপুর হিসেবেই দিনটা কেটে গেলো 


এখন শুধুই শীত ঘুমের স্বপ্ন দেখি 

আর রোদন ভরা বসন্তকে নিয়ে জাবর কাটি ;


অমলকান্তি রোদ্দুর হতে চেয়েছিলো 

আমি শুধুই তমসা হয়ে থেকে গেলাম 

আসলে আলো- ছায়া গল্পের শেষটা আমার জানা নেই -


তাই আমার কথা আর লেখা হলো না l




দিনলিপি

অমিতাভ মুখোপাধ্যায় 



এখন পড়ন্ত বেলা 

বেলা অবেলা কালবেলা 

সকাল -দুপুর প্রাঙ্গণে বসে দেখি শুধু ফুলেদের কানাকানি আর গাছেদের রমণ ;

ছোট ছোট পাখিরা খেলা করে 

রং বেরংঙের প্রজাপতিরা  করে পরাগ মিলন , সন্ধ্যায় হাসনুহানা সুগন্ধি ছড়ায় ;

অন্য ফুলেরা হিংসায় জ্বলে l


আমি কাগজে -কলমে মিতালী করি 

আর চর্বিত চর্বনের দিনলিপি লিখি 

কেউ পড়ে - কেউ পড়ে না !


মন মানে না -

আবার বসি ভাঙা বাঁশির গল্প শোনাতে l




চিঠি 

অমিতাভ মুখোপাধ্যায়


:একদিন ধূপছায়া দুপুরের ডাকে তোমার চিঠি পেতাম, সেসব চিঠিতে থাকতো কত প্রেম -প্রীতির অবুঝ সংলাপ,  কত নীরব  প্রতিশ্রুতির সংরাগ;তুমি বলতে, 

আরব্য রজনীর মতো জীবন হবে আমাদের,নয়তো তুমি হবে সতীবেহুলা,আমি লখীন্দর ;

তারপর হঠাৎই এক উদাসী দুপুরে তোমার চিঠি আসা বন্ধ হলো ;

ডাকপিয়ন জানালো, হয়তো নতুন কোনো ঠিকানায় সেই চিঠি চলে গেছে  -

অবুঝ মনকে বোঝালাম, সে মনপাখির দাঁড় বদল হয়েছে ;পদ্ম পাতায় যেমন জলধরে না, ঠিক তেমনই কাঁচা বয়সে মনও ধরে না ;

এটাই প্রেমের ধারাপাত, কখনও মেঘ, কখনও বৃষ্টি, কখনও ধূপ, কখনও ছায়া; সেই থেকে আমি তোমার ছায়াসঙ্গী হয়েই থেকে গেছি ;


আরব্য রজনী বা মঙ্গল কাব্যের নায়ক আর হতে পারিনি !





নীল আকাশের নীচে

অমিতাভ মুখোপাধ্যায়



                                     নীল আকাশের নীচে বসেবসে কেটে যায় মন্দদুপুর ;একদিনপ্রতিদিন, কেউ কি আসার কথা ছিল? শব্দের বারান্দায় বসে পাহারা দিলাম অনেকদিন,সব শব্দই তো এখন পুরনো, পলেস্তারা খসা দেয়ালের মতো, চারিদিকে শুধু চুনকালির প্রলেপ, একদিন স্বপ্নের ফেরিওয়ালা হতে চেয়েছিলাম, বাঁধানো খাতার মতো মনে হয়েছিল জীবনকে ; সকলেরই তাই হয় ;তারপর ভেঙে যায় সবুজের অভিযান, সকল শব্দ হয় কল্পলতা ;কোথাও অমৃত, কোথাও গরল, এরই আর এক নাম পরবাস, জীবন এখানে শুধুই সতীন কাঁটার দিনযাপন, শব্দ গড়া আর ভাঙার  অলীক ভ্রমণ !