সৌরভ দুর্জয় - ফরিদপুর

 

webtostory

অচীনপুরের যাত্রী 

-সৌরভ দুর্জয় 

অচিনপুরের যাত্রী আমি ; হাঁটবো নিরন্তর, 

তবু কেন বাঁধতে গেলাম পথের মাঝে ঘর?

ঘরের মায়ায় পড়ে তারে সাজাই বারেবার,

কোথায় রাখবো খাট পালঙ্ক হিসাব করি তার।

কিনে এনে ফুলের মালা ঝুলায় রাখি ঘরে,

বাজার থেকে তালা এনে লাগায় রাখি দোরে।

ঘরের সাথে গড়ে তুলি বিরাট রসুইখানা,

রান্না করি রসে ভরা কত খানাদান।

পুকুর কেটে সরোবরে সাঁতার কাটি রোজ,

কোথায় পাবো গানের পাখি করি তারই খোঁজ। 

এমন করে দিন চলে যায় আসে আঁধার রাত্রি, 

তাকায় দেখি আমি একা অচিনপুরের যাত্রী। 

মানুষ যারা চলে গেছে হেঁটে অচিনপুর,

আমার মত বোকা যারা রয়ে গেছি দূর।

আসল মালিক লাগায় দিবে সাধের ঘরে তালা,

হাঁটতে হবে একা একা ; বুঝবে তখন জ্বালা।

সময় থাকতে হাঁটো পথিক ভুলে ঘরের মায়া,

পৌঁছে গেলে অচিনপুরে পাবে শীতল ছায়া।

পাবে বাড়ি সোনায় গড়া রূপো দিয়ে ধোয়া,

ভরে যাবে শূন্য হৃদয় পেয়ে ফুলের ছোঁয়া।

ঘরের মায়া ভুলে পথিক হাঁটো অচিনপুর,

মনের থেকে লোভ লালসা করে দিয়ে দূর।


০৮/০৪/২০২২

ফরিদপুর।